নোটিশ :
২০ অক্টোবর ২০২১, ০৬:৩১ পূর্বাহ্ন

আন্তর্জাতিক

কমলা দেবী হ্যারিস ।

জন্ম ২০ অক্টোবর, ১৯৬৪ একজন মার্কিন রাজনীতিবিদ, আইনজীবী এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচিত উপরাষ্ট্রপতি। তিনি ডেমোক্র্যাটিক পার্টির একজন সদস্য। তিনি রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী জো বাইডেনের সাথে ২০২০ সালে অনুষ্ঠিত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং উপরাষ্ট্রপতি মাইক পেন্সকে হারিয়েছেন।

২০২১ সালের ২০ জানুয়ারি তিনি যুক্তরাষ্ট্রের উপরাষ্ট্রপতি হিসেবে শপথ গ্রহন করবেন।

তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে কনিষ্ঠ সিনেটর হিসাবে ২০১৭ সাল থেকে ক্যালিফোর্নিয়ায় দায়িত্ব পালন করেছেন।

তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ২০২০ সালের নির্বাচনে ডেমোক্র্যাটিক পার্টির মনোনীত উপরাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী।

ক্যালিফোর্নিয়ার ওকল্যান্ডে জন্মগ্রহণ করা কমলা হ্যারিস হাওয়ার্ড বিশ্ববিদ্যালয় এবং ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়, হেস্টিংস কলেজ অফ ল হতে স্নাতক উপাধির অধিকারী। তিনি আল্যামেডা কাউন্টি জেলা অ্যাটর্নি অফিসে তার কর্মজীবন শুরু করেন। পরবর্তীতে সান ফ্রান্সিসকো অ্যাটর্নি অফিসে ও আরও পরে সিটি অ্যাটর্নি অব ফ্রান্সিসকো অফিসে যোগ দেন। ২০০৩ সালে তিনি সান ফ্রান্সিসকোর অ্যাটর্নি জেনারেল নির্বাচিত হন; ২০১৪ সালে পুনঃনির্বাচিত হন।

তিনি ২০১৬ সালের সিনেট নির্বাচনে লোরেটা সানচেজকে পরাজিত করে বারবারা বক্সারের উত্তরসূরী হন। এর ফলে তিনি ক্যালিফোর্নিয়ার তৃতীয় মহিলা সেনেটর হওয়ার পাশাপাশি দ্বিতীয় আফ্রিকান-মার্কিন মহিলা এবং প্রথম দক্ষিণ-এশীয় বংশোদ্ভূত মার্কিনী হিসাবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আইনসভার উচ্চকক্ষ সিনেটে দায়িত্ব পালন করেছেন।

সিনেটর হিসাবে তিনি স্বাস্থ্যসেবা সংস্কার, নিয়ন্ত্রিত পদার্থের তফসিল হতে গাঁজা বাতিলকরণ, অনিবন্ধিত অভিবাসীদের নাগরিকত্বের পথ হিসাবে ড্রিম আইন, আগ্নেয়াস্ত্র নিষিদ্ধকরণ এবং প্রগতিশীল কর সংস্কারকে সমর্থন করেছেন।

সিনেটের শুনানির সময় ট্রাম্প প্রশাসনের কর্মকর্তাদের প্রতি তার তীক্ষ্ণ প্রশ্নের জন্য তিনি একটি জাতীয় পরিচিতি অর্জন করেন।
হ্যারিস ২০২০ সালের ডেমোক্রাট দলের প্রেসিডেন্ট মনোনয়নের জন্য অংশ নিয়েছিলেন এবং ৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ এ তার প্রচার শেষ হওয়ার আগে জাতীয় মনোযোগ আকর্ষণ করেছিলেন।

১১ই আগস্টে তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ২০২০ সালের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের জন্য সাবেক উপরাষ্ট্রপতি জো বাইডেনের সহকর্মী হিসাবে ঘোষিত হন।

ফলত তিনি প্রথম আফ্রিকাম-মার্কিনী এবং প্রথম এশীয়-মার্কিনী হিসাবে কোনও বড় রাজনৈতিক দলের রাষ্ট্রপতি প্রার্থীর চলতি সহকর্মী হিসাবে ঘোষিত হন।

এবং একই সাথে তিনি জেরাল্ডিন ফেরারো এবং সারা পেলিনের পরে বড় কোন দল থেকে তৃতীয় নারী হিসেবে উপরাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী হিসাবে মনোনয়ন পেলেন।

তিনি প্রথম নারী মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উপ রাষ্ট্রপতি।

কমলা দেবী হ্যারিস মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত উপরাষ্ট্রপতি।

স্টাফ রিপোর্টার:

ভারতীয় উপমহাদেশের বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ , ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জির জীবনাবসান।তিনি দীর্ঘদিন ধরে শারীরিকভাবে অসুস্থ ছিলেন।তিনি হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন।

তিনি দিল্লির সেনা হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮৪ বছর।২০১২ সাল থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত ভারতের রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব পালন করেন। পরবর্তীতে তিনি রাজনৈতিক জীবন থেকে অবসর নেন। মৃত্যুতে একজন বর্ণাঢ্য রাজনীতিবিদের রাজনীতিক অধ্যায়ের সমাপ্তি ঘটলো।তিনি ২০১৯ সালে ভারতরত্ন খেতাব এ ভূষিত হন।

আজ সকালে তাকে হাসপাতালে দেখতে যান ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। তিনি সেখানে ২০ মিনিট ছিলেন।

তার মৃত্যুতে সারাবিশ্বে শোকের ছায়া বিরাজ করছে।বাংলাদেশ হারাল তার অকৃত্রিম এক বন্ধুকে।তার স্ত্রী শুভ্রা মুখার্জী ,তার গ্রামের বাড়ি বাংলাদেশের নড়াইলে, তিনি ছিলেন বাংলাদেশের মেয়ের জামাই।

ভারতের বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ প্রণব মুখার্জির জীবনাবসান।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জন্য উপযুক্ত নন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।দেশে যে বর্তমানে বিশৃঙ্খলা ও বিভাজন তৈরি হয়েছে তার অবসানে ডেমোক্রেটিক দলের প্রেসিডেন্ট প্রার্থীকে বিজয়ী করার আহ্বান জানিয়ে তিনি একথা বলেছেন মার্কিন সাবেক ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামা।

গত ১৭ই আগস্ট সোমবার ডেমোক্রেটিক পার্টির জাতীয় কনভেনশনের প্রথম দিনে ট্রাম্পকে তীব্র ভাষায় আক্রমণ করেন সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার স্ত্রী মিশেল ওবামা।

তিনি বলেন বর্তমান প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প দীর্ঘদিন ধরে করোনাভাইরাস কে তুচ্ছ তাচ্ছিল্য করে দেশের অর্থনীতিকে হুমকির মুখে ফেলে দিয়েছেন।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জন্য তিনি একজন ভূল প্রেসিডেন্ট।

বর্ণ বৈষম্য ইস্যুতে ট্রাম্পের  বিতর্কিত ভূমিকার জন্য সমালোচনা করেন মিশেল ওবামা তিনি অভিযোগ করে বলেছেন এখনো বর্ণবাদ বিরোধী আন্দোলনকে উপহাসের চোখে দেখেন সরকার। হোয়াইট হাউজে শৃঙ্খলা বিভাজন ও সহানুভূতির অভাব লক্ষ করেছি আমরা। আমি স্পষ্ট করে বলতে চাই, আমাদের দেশের জন্য ভুল প্রেসিডেন্ট।

আগামী ৩রা নভেম্বর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এই নির্বাচনে বর্তমান প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের প্রতিদ্বন্দ্বী ডেমোক্রেটিক দলের প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী বাইডেন। নির্বাচনকে সামনে রেখে সোমবার থেকে ডেমোক্রেটিক পার্টির চার দিনব্যাপী জাতীয় ভার্চুয়াল কনভেনশন শুরু হয়েছে। আর প্রথম দিনেই মিশেল ওবামার রেকর্ড করা বক্তব্য শুনানো হয় সেখানে।

বিবিসির খবর এই দিনে ট্র‍াম্প এর প্রতি অসন্তোষের কথা জানিয়ে চিঠি লিখেছেন তারই রাজনৈতিক দল রিপাবলিকান পার্টি।

যুক্তরাষ্ট্রের জন্য ভূল প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প: মিশেল ওবামা

করোনা মহামারীর পরিস্থিতির কারণে বন্ধ হয়ে যাওয়া আকাশপথের যোগাযোগ ব্যবস্থা আবার চালুর প্রস্তাব দিয়েছে ভারত।

বাংলাদেশ ছাড়াও শ্রীলংকা আফগানিস্তান নেপাল ও ভুটানের সঙ্গে এয়ার বাবল ফ্লাইট চালু করতে চায় ভারত।

দেশটির বেসামরিক বিমান পরিবহন মন্ত্রী হারদীপ সিং মঙ্গলবার এক টুইট বার্তায় এ তথ্য জানিয়েছেন।

এয়ার বাবল ফ্লাইট এর মাধ্যমে কিছু নিয়ম-নীতি মেনে দ্বিপাক্ষিক ফ্লাইট পরিচালনা করবে ভারত।অস্ট্রেলিয়া জাপান সিঙ্গাপুর শহর সঙ্গে এ ধরনের যোগাযোগ চালুর বিষয়ে আলোচনা চলছে বলে জানান মন্ত্রী।

গত জুলাই মাস থেকে ভারত যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ,ফ্রান্স,জার্মানি এবং মালদ্বীপের সঙ্গে এয়ার বাবল ফ্লাইট পরিচালনা করে আসছে।

ভারতীয় মন্ত্রী হারদিপ সিং পুরি  বলেন, আমরা প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে ফ্লাইট চালুর বিষয়ে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছি।

গত ২৩ শে মার্চ থেকে করোন মহামারীর কারণে ভারত আন্তর্জাতিক ফ্লাইট পরিচালনা বন্ধ করে দেয়।

হারদিপ সিং পুরি  আরো বলেন আমরা বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে আটকে থাকা প্রত্যেক ভারতীয় নাগরিককে দেশে ফেরাতে চায়। কোন ভারতীয় যেন এই থেকে বাদ না পড়ে যায়।

গত ১৫ ই আগস্ট থেকে কানাডার সঙ্গে এয়ার বাবল ফ্লাইট চালু করেছে ভারত।

বাংলাদেশের সঙ্গে এয়ার বাবল ফ্লাইট চালুর প্রস্তাব ভারতের

করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ভারতের বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ,সাবেক অর্থমন্ত্রী,সাবেক প্রেসিডেন্ট প্রণব মুখার্জি।আজ সোমবার এক টুইট বার্তায় তিনি বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

যারা গত সপ্তাহে তার সংস্পর্শে যারা এসেছেন তাদের সবাইকে আইসোলেশন এ থাকার জন্য ও করোনা পরীক্ষা করার জন্য অনুরোধ করেছেন।

তার অসুস্থতার খবর ভারতের এনডিটিভি নিশ্চিত করেছে। তার এই আক্রান্তের খবরে পুরো বিশ্বজুড়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আশু রোগ মুক্তির বার্তায় সয়লাব। হাসপাতলে অন্য একটি রোগের পরীক্ষা করতে গিয়ে,আজ সকালে তিনি তার করোনা রিপোর্ট হাতে পান।প্রণব মুখার্জির বর্তমান বয়স ৮৪ বছর।

এই বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ এর আক্রান্তে খবরে পুরো ভারতের রাজনীতিবিদরা তার আশু রোগমুক্তি কামনা করেছেন।

করোনায় আক্রান্ত ভারতের বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ প্রণব মুখার্জি

সুইজারল্যান্ড তার বাধ্যতামূলক পৃথকীকরণ তালিকায় স্পেন এবং অন্যান্য ৬ টি দেশকে যুক্ত করেছে । ২০২০  সালের ৮ আগস্ট থেকে স্পেন এবং অন্যান্য ৪৫ টি দেশ থেকে সুইজারল্যান্ডে আগত লোকদের ১০ দিনের জন্য পৃথক করা উচিত।২০২০  সালের ৫ আগস্ট, সুইজারল্যান্ডের ফেডারাল অফিস অফ পাবলিক হেলথ (এফওপিএইচ) তার বিদ্যমান তালিকায়  ৭ টি দেশ যুক্ত করেছে যেখানে সারস-কোভ -২ সংক্রমণের ঝুঁকি রয়েছে। এর মধ্যে স্পেন (বালিয়ারিক ও ক্যানারি দ্বীপপুঞ্জ বাদে) সিঙ্গাপুর এবং বাহামাস রয়েছে।মঙ্গলবার স্পেনে ৫,৭৬০ টি নতুন কেস রেকর্ড করা হয়েছে, যা ২২ শে মার্চ, ২০২০ এ রেকর্ড করা নতুন প্রতিদিনের স্পেনের শীর্ষ দৈনিক সংখ্যার প্রায় ৭০ ০%।
অতিরিক্ত ৭ টি দেশ হ’ল:
• বাহামা
• নিরক্ষীয় গিনি
• রুমানিয়া
• সাও টোমে এবং প্রিনসিপে
• সিঙ্গাপুর

•সিন্ট মার্টেন
• স্পেন (ব্যালিয়ারিক এবং ক্যানারি দ্বীপপুঞ্জ বাদে)
তিনটি দেশকে তালিকা থেকে সরানো হয়েছে: আজারবাইজান, রাশিয়া এবং সংযুক্ত আরব আমিরাত।
বর্তমানে সংক্রমণের ঝুঁকিপূর্ণ রাজ্যের তালিকায় ৪৬ টি দেশ রয়েছে, যা নিয়মিত আপডেট হয়।
আপনি যদি সুইজারল্যান্ডে প্রবেশ করেন এবং গত ১৪ দিনের মধ্যে এই জায়গাগুলির একটিতে সময় কাটিয়েছেন তবে আপনাকে অবশ্যই পৌঁছানোর সাথে সাথে আপনার বাড়িতে বা অন্য কোনও উপযুক্ত বাসভবনে যেতে হবে এবং সেখানে ১০ দিন থাকতে হবে এবং বাইরে যাবেন না। বাচ্চাদের জন্য কোনও ব্যতিক্রম হয় না। পৃথকীকরণের আইনি প্রয়োজনীয়তা সুইজারল্যান্ডের মহামারী আইনতে নির্ধারিত হয়েছে। মেনে চলার জন্য জরিমানা CHF ১০০০০ হিসাবে বেশি হতে পারে।

একটি ফ্যাক্ট শিটটি নির্ধারণ করে দেয় যে পৃথকীকরণের সময় লোকেরা কী করতে হবে। আপনাকে অবশ্যই বাড়িতে বা উপযুক্ত আবাসে ১০ দিনের জন্য থাকতে হবে, অন্যান্য ব্যক্তির সাথে সমস্ত যোগাযোগ এড়ানো এবং স্বাস্থ্যবিধি সম্পর্কিত নিয়মগুলি পর্যবেক্ষণ করতে হবে। এমনকি যদি ভাইরাসটির জন্য আপনার পিসিআর পরীক্ষাটি নেতিবাচক হয়, তবুও আপনাকে ১০ দিন আলাদা করে রাখতে হবে।

আপনার পরিবারের যে লোকেরা উচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছে তাদের যদি পৃথক পৃথক অবস্থায় থাকা সম্ভব হয় তবে তারা পৃথক অবস্থায় থাকা অবস্থায় অন্য সকলের থেকে পৃথক থাকতে হবে। যদি আপনাকে কোনও চিকিত্সকের অ্যাপয়েন্টমেন্টের জন্য বাড়ি ত্যাগ করতে হয় তবে একটি মুখোশ পরুন এবং গণপরিবহন এড়ান। আপনি যদি যথেষ্ট ভাল বোধ করছেন, গাড়ি চালান, চক্র করুন, হাঁটুন বা ট্যাক্সি নিয়ে যান, নির্দেশের শিটটি উল্লেখ করে।

যদি আপনার ১০ দিনের পরে কোনও লক্ষণ না থেকে থাকে তবে ক্যারানটাইন থেকে বেরিয়ে আসার আগে ক্যান্টোনাল মেডিকেল পরিষেবাটি পরীক্ষা করে দেখুন, স্বাস্থ্যবিধি এবং সামাজিক দূরত্ব সম্পর্কিত নিয়মগুলি মেনে চলুন এবং আপনার স্বাস্থ্য পর্যবেক্ষণ অবিরত রাখুন। রোগের প্রথম লক্ষণগুলি পৃথকীকরণের পরেও উপস্থিত হতে পারে।

আইনী স্বচ্ছতার অভাব সত্ত্বেও, তালিকায় যুক্ত হওয়ার আগে যারা ঝুঁকিপূর্ণ দেশে ছিলেন তাদের বেতন থেকে বঞ্চিত হওয়ার আশঙ্কা করা উচিত নয় কারণ তারা পৃথকীকরণের কারণে তারা কাজ থেকে দূরে রয়েছেন, ফেডারেল জাস্টিস অফিসের ভাইস ডিরেক্টর মাইকেল শ্যালকে বলেছেন ।

সুইজারল্যান্ড তার বাধ্যতামূলক পৃথকীকরণ তালিকায় স্পেন এবং অন্যান্য ৬ টি দেশকে যুক্ত করেছে

লেবাননের তথ্যমন্ত্রী  মন্ত্রিসভার পদ থেকে পদত্যাগ করেছেন । লেবাননের তথ্যমন্ত্রী মনাল আবদেল সামাদ বৈরুত বন্দরে বিস্ফোরণে দেড় শতাধিক লোককে হত্যা ও রাজধানীর বিভিন্ন স্থান ধ্বংস করার পর প্রথম সরকারের পদত্যাগ থেকে সরে এসেছেন।

রোববার তিনি এক বিবৃতিতে লেবাননের জনগণের কাছে ব্যর্থ হওয়ার জন্য ক্ষমা চেয়ে এক বিবৃতিতে বলেছেন, “বৈরুতের বিরাট বিপর্যয়ের পরে আমি সরকার থেকে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছি।”লেবাননের মেরোনাইট গির্জার প্রধান পুরো রাষ্ট্রকে বিস্ফোরণ থেকে সরে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়েছিলেন, যা এই রাজ্যের মূল অংশের পঁচনের প্রমাণ হিসাবে দেখা যায়। এই বিস্ফোরণে ক্ষুব্ধ লেবাননের বিক্ষোভকারীরা রাতের সংঘর্ষের পরে তারা বেশ কয়েকটি মন্ত্রণালয়ে হামলা চালিয়ে যাওয়ার পরে আবার সমাবেশ করার প্রতিশ্রুতি দেয়। মারোনাইটের পিতৃপতি বেচারা বাউত্রস আল রাহি জনগণের সংখ্যায় যোগ দিয়েছিলেন যে প্রধানমন্ত্রী হাসান দিয়াবের মন্ত্রিসভায় বিস্ফোরণে পদত্যাগ করতে চাপ দিয়েছিলেন, যা তিনি বলেছিলেন যে “মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ হিসাবে বর্ণনা করা যেতে পারে”।রোববারের এক খুতবা প্রসঙ্গে রাই বলেন, “এখানে আইন প্রণেতার পক্ষে পদত্যাগ করা বা মন্ত্রীর পক্ষে সেখানে পদত্যাগ করা যথেষ্ট নয়।” “পুরো সরকারকে পদত্যাগ করা লেবাননের অনুভূতি এবং প্রচুর দায়িত্বের সংবেদনশীলতার বাইরেও প্রয়োজনীয়, কারণ তারা দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে অক্ষম।”

 

লেবাননের তথ্যমন্ত্রী  মন্ত্রিসভার পদ থেকে পদত্যাগ করেছেন

বলিউড অভিনেতা সঞ্জয় দত্তকে  শ্বাসকষ্টের কারণে সঞ্জয় দত্ত মুম্বইয়ের লীলাবতী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন, কোভিড -১৯ এর জন্য নেতিবাচক পরীক্ষা করেছেন

বলিউড অভিনেতা সঞ্জয় দত্তকে মুম্বইয়ের লীলাবতী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। প্রতিবেদন অনুসারে শ্বাসকষ্ট ও শ্বাসকষ্ট সম্পর্কে তিনি অভিযোগ করছিলেন। অনলাইনে এবং গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রচারের খবরে বলা হয়েছে, অভিনেতা উপন্যাসটি করোনাভিসের জন্য নেতিবাচক পরীক্ষা করেছেন। খবরে বলা হয়েছে যে অভিনেতার নমুনা আরটি পিসিআরের জন্য নেওয়া হয়েছিল। দত্তকে বর্তমানে হাসপাতালের নন-কোভিড আইসিইউ ওয়ার্ডে পর্যবেক্ষণে রাখা হচ্ছে। এএনআইকে দেওয়া এক বিবৃতিতে হাসপাতাল বলেছিল, “অভিনেতা সঞ্জয় দত্তকে শ্বাসকষ্টের অভিযোগের পরে মুম্বাইয়ের লীলাবতী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। তাঁর কভিড -১৯ রিপোর্টটি নেতিবাচক হলেও তিনি এখনও কিছুক্ষণ ডাক্তারি পর্যবেক্ষণের জন্য রয়েছেন। তিনি নিখুঁত রয়েছেন। জরিমানা। “তার অবস্থা পর্যালোচনা করা চিকিত্সকরা যদি মনে করেন যে তিনি স্থিতিশীল আছেন তবে অভিনেতাকে আগামীকালই হাসপাতাল থেকে ছাড় দেওয়া যেতে পারে। ততক্ষণে জানা গেছে যে চিকিত্সকরা কয়েকটি পরীক্ষার আদেশ দিয়েছেন, যার জন্য তারা ফলাফলের অপেক্ষায় রয়েছেন। দত্ত বর্তমানে মুম্বাইয়ে রয়েছেন। লকডাউনের কারণে তার স্ত্রী এবং দুই বাচ্চা বর্তমানে বিদেশে আটকে আছে

সূত্র: টাইমস অফ ইন্ডিয়া

শ্বাসকষ্টের কারণে সঞ্জয় দত্ত হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন, কোভিড -১৯ এর জন্য নেতিবাচক পরীক্ষা করেছেন

জাতীয়

অর্থনীতি

করোনা মহামারীতে ব্যবসা-বাণিজ্যের ওপর ব্যাপক প্রভাব পড়েছে ।তবে সবচেয়ে বেশি প্রভাব পড়েছে পুস্তক শিল্পে।বর্তমান পরিস্থিতিতে বাংলাদেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ। এই কারণে রাজধানীর দুটি গুরুত্বপূর্ণ বই বিক্রির এলাকা নীলক্ষেত ও বাংলাবাজার অনেক দিন বন্ধ ছিল।

যদিও ঈদুল ফিতরের পর ব্যবসায়ীরা তাদের দোকান খুলেছে তবুও বিক্রি একেবারে নেই বললেই চলে। হাতেগোনা দুই একজন ক্রেতা মাঝেমধ্যে আসলেও বিক্রির হার একেবারেই কম। ব্যবসায়ীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, তারা ইতিমধ্যেই অনেক টাকা ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন। এ পরিস্থিতিতে তাদের পক্ষে ব্যবসা পরিচালনা করা অনেক বেশী কঠিন। এই সময় বিশেষ করে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ছাত্রছাত্রী ভর্তি কার্যক্রম থাকতো।শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার কারণে যেমন কমেছে আয় তেমনি অন্যান্য ক্রেতারা করোনা মহামারী পরিস্থিতির কারণে তারা অনেকেই  বই কেনার জন্য আসেন না।তাই ব্যবসায়ীদের মধ্যে হতাশা বিরাজ করছে ।বলা যায় বর্তমানে এই শিল্প  স্থবির বলা যায়।

করোনা মহামারীতে বই ব্যবসায় ধস।

রাজনীতি

করোনার মতো বৈশ্বিক মহামারীর পরিস্থিতিতে স্থগিত হয়ে যাওয়া রাজনৈতিক কর্মসূচি সীমিত আকারে শুরু করছে বর্তমান ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ।সাংগঠনিক কর্মকাণ্ড এগিয়ে নিতে চিন্তাভাবনা করছে ক্ষমতাসীন দলের নীতিনির্ধারণী পর্যায়ের নেতারা।

দলের সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মানুষের পাশে দাঁড়ানোর নির্দেশ দেন দলের নেতা-কর্মীদেরকে।করোনা পরিস্থিতি বিবেচনা করে এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।দলীয় সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা মানুষকে সচেতন করা, সুরক্ষা উপকরণ বিতরণ, এর পাশাপাশি খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেওয়ার কর্মসূচি নিয়ে মাঠে নামেন।

করোনা ঝুঁকি এড়াতে” মুজিব বর্ষের” কর্মসূচি স্থগিত করলে আওয়ামী লীগ‌ও জনসভার কর্মসূচি পরিহার করে চলে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে যে সব কর্মসূচি পালন করা যায়, সেগুলো চলমান থাকে।ফলে স্থগিত হয়ে পড়ে দলের সাংগঠনিক কার্যক্রম।”মুজিব বর্ষের”কর্মসূচি স্থগিতের পাশাপাশি দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী কর্মসূচি পালন করা হয় সীমিত আকারে। স্বাধীনতা দিবস ও দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আয়োজনে ডিজিটাল প্লাটফর্মে বেছে নেয় ক্ষমতাসীন দলটি।

দলের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সহ অধিকাংশ নেতা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে নানা কর্মসূচিতে অংশ নেন। দলের সাংগঠনিক নির্দেশনা ও দেওয়া হয় ডিজিটাল প্লাটফর্মে।

শোকাবহ আগস্ট মাসে কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে সীমিত আকারে রাজনৈতিক কর্মসূচি শুরু পড়েছে আওয়ামী লীগ।শোকাবহ আগস্টের কর্মসূচিগুলোতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে মাক্স পরে দলীয় কার্যালয়ে সহ বিভিন্ন কর্মসূচিতে হাজির হচ্ছেন নেতাকর্মীরা।

এই বিষয়ে আমি লীগের সভাপতি মন্ডলীর অন্যতম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন আসলে জীবন-জীবিকার প্রশ্ন করোনা কে সঙ্গে নিয়ে এগোচ্ছি।সেই ধারাবাহিকতায় রাজনীতি ও থমকে থাকতে পারে না। জনগণের জন্য রাজনীতি। রাজনীতিবিদকে ও জনগণের পাশে থাকতে হবে।গণমানুষের দল হিসেবে আওয়ামী লীগ তার রাজনৈতিক কর্মযজ্ঞ শুরু করেছে বলেও তিনি জানান।

 

সাংগঠনিক কর্মসূচি সীমিত আকারে চালু নিয়ে ভাবছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ।

সারাদেশ

বিশেষ প্রতিনিধি:

নোয়াখালী সেনবাগ বাজারের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মন্নান এন্ড সন্স এর স্বত্বাধিকারী আব্দুল মন্নান আর আমাদের মাঝে নেই। তিনি আজ ৯ জুলাই শুক্রবার ভোরবেলায় আনুমানিক ৩:৪৫ মিনিটে নিজ বাড়িতে ইন্তেকাল করেন।

ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।

তিনি সেনবাগ পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ড দক্ষিণ কাদরা’র বাসিন্দা।

মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৯ বছর।

আজ ৯ জুলাই শুক্রবার বেলা ১১ মরহুমের নিজ বাড়ির সামনে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

মৃত্যুকালে তিনি পরিবার আত্মীয়-স্বজন ও বন্ধু-বান্ধব সহ বহু গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। তার মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া বিরাজ করছে।

সেনবাগের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আব্দুল মন্নান আর নেই।

বিশেষ প্রতিনিধি:

নোয়াখালী সেনবাগ-সোনাইমুড়ী সড়কের   প্রশস্তকরণের কাজ চলছে। সেনবাগ-সোনাইমুড়ী অত্যন্ত জনগুরুত্বপূর্ণ ।দীর্ঘদিন ধরে সড়কটি প্রশস্তকরণের জন্য এই এলাকার মানুষের দাবী ছিল।

বেশ কিছুদিন ধরে সড়কটি প্রশস্তকরণের কাজ চলছে।বৈদ্যুতিক খুঁটি প্রশস্তকরণের প্রধান বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে।

সড়কটির দুই পাশে বৈদ্যুতিক খুঁটি বিদ্যমান।

প্রশস্তকরণ কাজের জন্য বৈদ্যুতিক খুঁটি অপসারণ প্রয়োজনীয়তা দেখা দিয়েছে।

আজ ২৪ ডিসেম্বর রোজ বৃহস্পতিবার সড়কটি ও বৈদ্যুতিক খুঁটি পরিদর্শন করেন সংশ্লিষ্ট এলাকার পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির পরিচালক মোহাম্মদ আশরাফুল আলম (রানা) , সেনবাগ পল্লী বিদ্যুৎ এর এজিএম (কম) সঞ্জয় দাস ।

পরিদর্শনকালে স্থানীয় বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের সাথে যুক্ত ব্যক্তিগণ ও কাজের সাথে জড়িত ঠিকাদার প্রতিনিধিগণ উপস্থিত ছিলেন।

সেনবাগে বিদ্যুতের খুঁটি অপসারণের জন্য স্থান পরিদর্শন।

প্রবাস জীবন

সাউথ আফ্রিকার ব্লুমফন্টেইনে আতাতীয় বন্দুকধারীর গুলিতে খুন বাংলাদেশী নাগরিক সজল । বাংলাদেশী নাগরিক সজল খাঁনের খুনের নেপথ্যে নিছক কোন ডাকতির ঘটনা ছিল না । সজলের কৃষাঙ্গ দোকান মালিকের ভাড়াটিয়া বন্দুকধারীর গুলিতে খুন হয়েছে সজল খাঁন । সজল খুনের নেপথ্যের ঘটনা তদন্ত করতে গিয়ে এমন ভয়ংকর তথ্য বেরিয়ে এসেছে । ব্রাহ্মণবাড়িয়া কসবা উপজেলা বাসিন্দা সজল খাঁন ফ্রী স্টেইট প্রদেশের ব্লুমফন্টেইন শহরের চেকপয়েন্ট নামে একটি মার্কেটে পাইকারি দোকানের ব্যবসা করতেন সাথে গ্রামেও তার দোকান ছিল । গত কিছু দিন আগে যে কোন একটি বিষয় নিয়ে গ্রামের কৃষাঙ্গ দোকান মালিকের সাথে সজলের কথা-কাটাকাটি হয় । একপর্যায়ে তা হাতাহাতি হয়ে মামলা, পুলিশ,জেল হয়ে আদালত পর্যন্ত গড়ায় । আইনি প্রক্রিয়ায় সবকিছু মিমাংসা হয়ে যাওয়ার পরও কৃষাঙ্গ দোকান মালিকের রাগটি মিমাংসা হয়ে যায়নি । সজলের উপর রাগের বসবতি হয়ে কৃষাঙ্গ দোকান মালিক ভাড়াটিয়া বন্দুকধারী দিয়ে খুন করে সজলকে । অবশ্যই খুনের ধরণ দোখেও তা অনুমান করা যায় । আফ্রিকায় বসবাসকারী বাঙালিরা বলেন এই দেশটা আমাদের না প্রতিবছর নানা ভাবে খুন হয় বাংলাদেশী নাগরিক তাই আসুন আমরা আরো সর্তক হয়।সারাদিন কাইল্ল্যা কালি বলে যতই গালাগালি করি, দিন শেষে বুঝতে হবে এই দেশটি আমাদের জন্য নিরাপদ নয় ।

 

সাউথ আফ্রিকার ব্লুমফন্টেইনে আতাতীয় বন্দুকধারীর গুলিতে খুন বাংলাদেশী নাগরিক সজল !!!

সৌদি আরব প্রবাসী যারা বর্তমানে সৌদিতে আছেন এবং যারা ছুটিতে আছেন সবার জন্য আবারও তিন মাসের জন্য মেয়াদোত্তীর্ণ রেসিডেন্সি পারমিটের (ইকামা) মেয়াদ বাড়িয়ে ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। সংবাদটি প্রবাসীদের জন‍্য শুভ বার্তা।

সৌদি প্রবাসী সংবাদ

অপরাধ

রাজশাহী গণপূর্ত কার্যালয়ে দেলোয়ার হোসেন (২৮) নামে এক প্রকৌশলীর ওপর হামলা চালিয়েছেন ঠিকাদার এবং তার সহযোগী।হামলায় প্রকৌশলী দেলোয়ার রক্তাক্ত জখম হয়েছেন।তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের ৫ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে। এ সময় ওই প্রকৌশলীর কক্ষের ল্যাপটপ এবং প্রিন্টারসহ বিভিন্ন আসবাবপত্র ভাংচুর করা হয়। ঘটনার সময় ঠিকাদার এবং তার সহযোগীর তাণ্ডবে গণপূর্ত কার্যালয়ের কর্মকর্তা এবং কর্মচারীদের মধ্যে ব্যাপক আতঙ্কের সৃষ্টি হয়।

আজ সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে গণপূর্ত বিভাগ-২ এর নির্বাহী প্রকৌশলীর কার্যালয়ে এ হামলা এবং ভাংচুরের ঘটনা ঘটে।

এঘটনায় পুলিশ ঠিকাদার লিটন এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী রাজশাহী মহানগরীর সাধুর মোড় এলাকার বাসিন্দা শাহাবুল মঞ্জুর লিটন (৩১) এবং তার ম্যানেজার মহানগরীর উপকণ্ঠ চক কাপাসিয়ার বাসিন্দা আতিকুর রহমানকে (৩২) গ্রেফতার করেছে।

হামলার শিকার প্রকৌশলী দেলোয়ার হোসেন জানান, কোটি টাকা ব্যয়ে রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলায় ভূমি অফিস নির্মাণ কাজ চলছে। রোববার বিকালে তিনি এ নির্মাণ কাজ পরিদর্শনে যান। এ সময় সেখানে নিম্নমানের ইটের খোয়া দিয়ে ঢালাই কাজ চলছিল।এছাড়া কাজের সিডিউলে চার ইঞ্চি ঢালাই দেয়ার বিষয়টি উল্লেখ থাকলেও দেয়া হচ্ছিল আড়াই ইঞ্চি।এ সময় তিনি কাজটি বন্ধ করে দেন এবং ঘটনাস্থল থেকে নিম্নমানের নির্মাণসামগ্রী সরিয়ে নেয়ার নির্দেশ দেন।

তিনি আরো জানান,এ ঘটনার জের ধরে ঠিকাদার লিটন এবং তার ম্যানেজার আতিক আজ বেলা সাড়ে ১১টার দিকে তার অফিস কক্ষে আসেন।

এই সময় লিটন ঘটনাস্থল থেকে নিম্নমানের নির্মাণসামগ্রী সরিয়ে নিতে অস্বীকৃতি জানান।

দেলোয়ার হোসেন জানান, এক পর্যায়ে লিটন এবং তার সহযোগী তার ওপর হামলা চালান। এ সময় লিটন কাঠের চেয়ার দিয়ে তাকে বেধড়ক পেটান। ফলে তার ডান চোখের উপরের অংশে আঘাত লেগে গভীর ক্ষতের সৃষ্টি হয়। এছাড়া শরীরের বিভিন্ন অঙ্গে গুরুতর আঘাত রয়েছে। হামলার পর লিটন এবং তার সহযোগী আতিক ব্যাপক ভাংচুর চালান। তার কক্ষের চেয়ার, টেবিল, ল্যাপটপ এবং প্রিন্টার ভেঙে ফেলেন।

এ বাপারে গণপূর্ত বিভাগ-২ এর নির্বাহী প্রকৌশলী ফেরদৌস শাহনেওয়াজ কান্তা জানান, ঠিকাদার লিটন এবং তার সহযোগী আতিক প্রকৌশলী দেলোয়ারকে মারধর এবং তার কক্ষে ব্যাপক ভাংচুর চালিয়েছেন।এ সময় পুলিশ এবং র‍্যাব সহ বিভিন্ন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

রাজপাড়া থানার ওসি শাহাদাত হোসেন খান এ ব্যাপারে জানান, এ ঘটনায় ঠিকাদার লিটন এবং তার সহযোগী আতিকের বিরুদ্ধে  মামলা দায়ের করা হয়েছে।গ্রেফতারকৃতদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের পর আদালতে পাঠানো হবে।

রাজশাহীতে প্রকৌশলীকে ব্যাপক মারধর ঠিকাদারসহ দুই জন গ্রেপ্তার

প্রতিবেদক:আবুল কালাম আজাদী

নকল মাস্ক সরবরাহের করার কারণে অপরাজিতা ইন্টারন্যাশনালের মালিক শারমিন জাহানকে গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) একটি দল।ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের গণমাধ্যম শাখার প্রধান ওয়ালিদ হোসেন অপরাজিতার মালিক শারমিনের গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।তিনি বলেন শুক্রবার রাত সাড়ে ১০ টায়(২৪ জুলাই) রাতে শাহবাগের একটি বাসা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। শারমিন জাহান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন-১সহকারী রেজিষ্টার।তার থানায় মামলা দায়েরে পর থেকেই পলাতক ছিলেন।তাকে গোপন সংবাদে ভিত্তিতে শাহবাগ এলাকা থেকে ঢাকার ডিবির দল তাকে গ্রেপ্তার করে।
রমনা জোনের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) সাজ্জাদ হোসেন এর আগে শারমিন জাহানকে গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। এর আগে নকল মাস্ক সরবরাহের অভিযোগে অপরাজিতা ইন্টারন্যাশনালের স্বত্বাধিকারী শারমিন জাহানের বিরুদ্ধে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) প্রক্টর বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন।মামলায় শারমিনকে প্রধান আসামি করা হয়েছ।

নকল মাস্ক সরবরাহের দায়ে অপরাজিতার মালিক শারমিন জাহান গ্রেফতার।

বিনোদন

বিশেষ প্রতিনিধি:

বাংলা চলচ্চিত্রের সুপারস্টার শাকিব খানের বাণিজ্যিক ছবি আজ প্রথম অ্যাপে মুক্তি পাচ্ছে। ছবিটির নাম নবাব LL.B। ছবিটি কোনো সিনেমা হলে মুক্তি পাচ্ছে না।

ছবিটি পরিচালনা করছেন পরিচালক অনন্য মামুন।

শাকিব খানের প্রথম কোন ছবি সরাসরি অ্যাপে মুক্তি পাচ্ছে। আজ ১৬ ই ডিসেম্বর বাংলাদেশ সময় রাত ৮ আটটায় ছবিটি মুক্তি পাবে।

ছবিটি মুক্তি পাবে আই থিয়েটার(Itheater) অ্যাপে। ছবিটি অ্যাপে টিকিট কেটে দেখতে হবে।

ছবিটিতে শাকিব খানের সাথে জুটি বেঁধে অভিনয় করছেন সময়ের অন্যতম সফল নায়িকা মাহিয়া মাহি।

ছবিটি বর্তমান সমসাময়িক ঘটনা, বিশেষ করে নারী নির্যাতন কেন্দ্রিক বিষয়গুলোকে কেন্দ্র করে ছবিটির কাহিনী গড়ে উঠেছে।

ইতিমধ্যে ছবির গানগুলো দর্শকদের মাঝে ব্যাপক প্রশংসিত হয়েছে। দেশ-বিদেশে শাকিব ভক্তদের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ দেখা দিয়েছে।

ছবিতে আরও উল্লেখযোগ্য চরিত্রে অভিনয় করছেন স্পর্শিয়া ও শহীদুজ্জামান সেলিম ও প্রমূখ।

ছবিটি নিয়ে ছবির পরিচালক ,নায়ক-নায়িকা ও অন্যান্য কলাকুশলীরা অনেক বেশি আশাবাদী।তারা ছবিটির ব্যবসায়িক সাফল্য কামনা করেন।

 

আজ অ্যাপে মুক্তি পাচ্ছে শাকিব খানের বাণিজ্যিক ছবি।


নিজস্ব প্রতিবেদক:
গত১০ বছরে টিভিপর্দায় যে অভিনেতা তার অসাধারণ অভিনয় দিয়ে বাংলাদেশে নয় বাংলা ভাষাভাষী দর্শকদেরকে মুগ্ধ করে রেখেছেন তিনি আর কেউ নয় অভিনেতা মোশারফ করিম। তার ব্যস্ততা এমনই ছিল যে ঈদের দিন পর্যন্ত তাকে শুটিং করতে হয়েছে।

কিন্তু করোনা কালিনী মহামারীর পরিস্থিতিতে তিনি অখন্ড অবসর পেয়েছেন তিনি এই অবসর সময়ে  তার পরিবারকে নিয়ে সময় কাটাচ্ছেন।

তার এই ব্যস্ততা গুলো তার জীবনের তাকে অন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছে, তাকে জিজ্ঞেস করা হয়েছিল আপনি অবসর সময় কিভাবে কাটাচ্ছেন তিনি বলেন আমি আমার অভিনয়জীবনের গত কয়েক বছরে আমি আমার পরিবারকে সময় দিতে পারিনি এখন আমি আমার পরিবারকে সময় দিচ্ছি এবং এই অবসর সময় টিকে আমি যথেষ্ট উপভোগ করছি।

আমি আমার শরীরের প্রতি যত্ন নিতে পারেনি আমি এই সময় আমার শরীরের প্রতি যত্ন নিচ্ছি এবং নিজেকে আবার নতুন রূপে ফিরে পাওয়ার চেষ্টা করছি।

এমন অবসর সময় আমার জন্য খুবই ভাল হয়েছে বলে আমি মনে করি এবং এই অবসর সময়টুকু আমার জীবনকে আরো বেশি উপভোগ্য করে তুলেছে।

তবে এখানে উল্লেখ্য যে,এবারের ঈদে তার অনেকগুলো নাটক টিভিপর্দায় দর্শকরা উপভোগ করতে পারছেন। তিনি অসংখ্য টিভি নাটকে ছাড়াও সিনেমায় অভিনয় করেছেন।

বাংলা নাটকের অনন্য অসাধারণ অভিনেতা মোশারফ করিম।

চাকুরী

খেলাধুলা

Our Like Page

সম্পাদকীয়

 (জন্ম:১ জানুয়ারি’ ১৯২৫ –  ১৪ ফেব্রুয়ারি ১৯৯৮)

বদরুল হায়দার চৌধুরী বাংলাদেশের একজন প্রখ্যাত আইনবিদ এবং ছিলেন ৫ম প্রধান বিচারপতি ।১৯২৫ সালের ১ জানুয়ারি তারিখে তত্কালীন ব্রিটিশ ভারতের নোয়াখালী জেলার সুধারাম উপজেলার (বর্তমান কবিরহাট উপজেলা) নুরসোনাপুর গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন বদরুল হায়দার চৌধুরী । তার পিতার নাম খান বাহাদুর মোহাম্মদ গাজী চৌধুরী।

১৯৪৮ সালে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইতিহাসে এম.এ. ও ১৯৫১ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এলএল.বি ডিগ্রি লাভের পর বদরুল হায়দার চৌধুরী  ১৯৫৫ সালে যুক্তরাজ্যের লিংকনস্-ইন থেকে বার আ্যট ল’ ডিগ্রি অর্জন করেন । ১৯৫৬ সালে বদরুল হায়দার চৌধুরী আইনজীবি হিসাবে ঢাকা হাইকোর্টে কাজ শুরু করেন এবং ১৯৭১ সালের এপ্রিল মাসে বদরুল হায়দার চৌধুরী ঢাকা হাইকোর্টের বিচারক নিযুক্ত হন। স্বাধীনতার পর ১৯৭২ সালের জানুয়ারি মাসে তিনি হাইকোর্টের বিচারক নিযুক্ত হন এবং ১৯৭৮ সালে আপিল বিভাগের বিচারক পদে উন্নীত হন।

বিচারপতি এফ. কে. এম. এ মুনিমের অবসর গ্রহণের প্রেক্ষিতে বাংলাদেশের মহামান্য রাষ্ট্রপতি বাংলাদেশের ৫ম প্রধান বিচারপতি হিসাবে ১৯৮৯ সালের ৩০ নভেম্বর তারিখে বদরুল হায়দার চৌধুরীকে নিয়োগ প্রদান করেন এবং তিনি ১৯৮৯ সালের ১ ডিসেম্বর তারিখে প্রধান বিচারপতি হিসাবে শপথ গ্রহণ করেন। সংবিধানের ৮ম সংশোধনী মামলায় তাঁর রায় দেশের সাংবিধানিক আইনজ্ঞদের দৃষ্টিতে দেশের আইনি ইতিহাসে একটি ঐতিহাসিক দৃষ্টান্ত স্থাপন করে । ১৯৮৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর তারিখে ৬৫ বছর পূর্ণ হওয়ায় অবসর গ্রহণ করেন।

তার সুযোগ্য কন্যা বিচারপতি  নাইমা হায়দার  বাংলাদেশের সুপ্রিম কোর্টের হাই কোর্ট বিভাগের একজন বিচারক। তিনি বাংলাদেশের হাইকোর্ট বিভাগে নিয়োগপ্রাপ্ত নারী বিচারকদের মধ্যে পঞ্চম।

 

বিচারপতি বদরুল হায়দার চৌধুরী সমাজকল্যাণমূলক কর্মকান্ডে তৎপর ছিলেন। ১৯৭২ সালে তিনি ডায়াবেটিক অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান এবং ১৯৮০ থেকে ১৯৯৮ সাল পর্যন্ত চেশায়ার ফাউন্ডেশন হোম ম্যানেজমেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান ছিলেন। অবসর গ্রহণের পর তিনি বাংলাদেশ সোসাইটি ফর এনফোর্সমেন্ট অব হিউম্যান রাইটস-এর সভাপতি হন।

বদরুল হায়দার চৌধুরী লেখক হিসেবে সুখ্যাতি লাভ করেন তাঁর রচিত Those Were the Days (১৯৫৬) স্মৃতিকথার জন্য । তাঁর অপরাপর গ্রন্থ The Long Echoes (১৯৯০) এবং The Evolution of the Supreme Court of Bangladesh (১৯৯১)।

১৯৯৮ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি বদরুল হায়দার চৌধুরী ইন্তেকাল করেন। তিনি বাংলাদেশের ইতিহাসে একজন সফল প্রধান বিচারপতি ছিলেন।

লেখক:

এস এম ছালেহ  আহমেদ (নিরু)

অ্যাডভোকেট, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট,

এন্ড

বার্তা সম্পাদক ল’ইয়ার্স টিভি ।

বাংলাদেশের ৫ম প্রধান বিচারপতি মরহুম বদরুল হায়দার চৌধুরীর জীবন ও ইতিকথা :